শিখে নিন ৭ টি সাইকোলজিকাল ট্রিকস!!!

    নিজেকে সকল পরিস্থিতিতে ঝরঝরে ফ্রেশ রাখতে, যে কোন কঠিন অবস্থায়ও মুখে হাসি ফুটিয়ে রাখতে আপনার প্রয়োজন সবস্ময় মাথা ঠান্ডা রাখতে পারা। এক্ষেত্রে মনোবিজ্ঞানীরা বাৎলে দিয়েছেন কিছু ট্রিকস বা কৌশল, যেগুলো জীবনকে সহজ করবে এবং স্ট্রেসফুল পরিস্থিতিতে ঝটপট সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে।
১। চিবোতে শুরু করুন চুইং গাম বা অন্য কোন খাবার
আপনি যখন অনেক নার্ভাস অনুভব করছেন তখন খুব কাজে দেবে এই কৌশলটি। এর ফলে আপনার মস্তিষ্কের প্রাইমাল অংশে এই মেসেজ যায় যে, আপনি বিপদে পড়বেন না। কারণ আপনি খাচ্ছেন!
২। মাথা ঠান্ডা রাখার লাভ
কেউ যদি আপনার উপর রেগে যায় আর আপনি মাথা ঠান্ডা রাখেন তাহলে সেই মূহূর্তে হয়ত মানুষটি আরও রেগে যাবে এবং আপনার উপর তার প্রতিক্রিয়া আরও খারাপ হবে। কিন্তু পরে ঠিকই সে লজ্জিত বোধ করবে।
৩। প্রশ্নের উত্তর পেতে
আপনি যদি কাউকে কোন প্রশ্ন করেন এবং সে যদি হেঁয়ালিপূর্ণ উত্তর দেয় তাহলে তার চোখে চোখ রেখে সরাসরি চুপচাপ তাকিয়ে থাকুন কয়েক সেকেন্ড। সে নিজেই বুঝতে পারবে যে তার উত্তরটি ভাল হয় নি এবং আবারো আরও গুছিয়ে উত্তর দেবে।
৪। সিরিয়াস পরিবেশকে হালকা করুন
আপনার আবেগের প্রকাশ অন্যকেও একই অনুভূতি দিতে এবং আপনার সাথে যুক্ত হতে আমন্ত্রণ জানায়। আপনি যদি পরিবেশকে হালকা করতে চান, তাহলে যতটা সম্ভব সুন্দর করে, ঠোঁট বিস্তৃত করে হাসুন।
৫। এই কথাগুলো বলবেন না
কখনো বলবেন না বা লিখবেন না ‘আমি মনে করি’ বা ‘আমি বিশ্বাস করি’। এটা আপনার আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি প্রকাশ করে। এর পরিবর্তে যা বলতে চান সরাসরি বলুন। কন্ঠে দৃঢ়তা আনুন। অন্যেরা বরং ভড়কে যাবে।
 
৬। ইন্টারভিউ বোর্ডে
মনে মনে নিজেকে শান্ত করুন। ভাবুন, আপনার বন্ধুরা আপনার সাথেই আছে। পুরোনো বন্ধু মানেই আস্থা, আত্মবিশ্বাস, স্বস্তির নিশ্বাস। মন দ্রুত রিল্যক্স বোধ করবে। আপনার নার্ভাসনেস কমবে।
৭। ঘনিষ্ঠতা
একটা গ্রুপে সবাই যখন কোন কারণে হাসে তখন হাসতে হাসতে আপনি প্রথমে সেই মানুষটার দিকে তাকান যে আপনার ঘনিষ্ঠ বা যার সাথে আপনি ঘনিষ্ঠতা তৈরি করতে চান। এটি একটি সাধারণ মানব বৈশিষ্ট্য।
[x]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *