শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগ পরীক্ষা ১৭ জুন

ঘুষ লেনদেন, প্রশ্নফাঁসসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে প্রায় তিন বছর আগে বাতিল হয়েছিল মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষা। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে  বাতিল হওয়া ওই পরীক্ষা ১৭ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক এ এস এম ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, আগামী ১৭ জুন শুক্রবার প্রথম পর্বে প্রদর্শক (ডোমোনস্টেটর) পদের পরীক্ষা হবে। ওই দিন সকাল ১০টায় ঢাকা মহানগরীর ১১টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি আরও জানান, পরীক্ষার আসন ব্যবস্থাপনা সহ অন্যান্য যাবতীয় তথ্য মাউশি অধিদপ্তরের ওয়েব সাইটে পাওয়া যাবে। পরীক্ষার সময়সূচি সহ অন্যান্য তথ্য সংশ্লিষ্টদেরকে টেলিটক বাংলাদেশের বার্তার মাধ্যমেও যথাসময়ে জানিয়ে দেয়া হবে।

অধ্যাপক এ এস এম ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, অন্যান্য পদের আবেদনকারীদের লিখিত পরীক্ষা পর্যায়ক্রমে নেওয়া হবে। পরীক্ষার তারিখও একই পদ্ধতিতে পর্যায়ক্রমে জানানো হবে।

এদিকে নাম না প্রকাশ করার শর্তে মাউশির এক কর্মকর্তা বলেন, ওই সময় পরীক্ষাটি বাতিল করা হয়েছিল। অভিযোগ ছিল ঘুষ লেনদেন ও প্রশ্ন সরবরাহের। এখন ওই একই প্রার্থী দিয়েই পরীক্ষা নেওয়া হলে নিয়োগ স্বচ্ছ হবে কিনা তা নিয়েও সংশয় রয়েছে।

জানা যায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এবং অধিদপ্তরের অধীন বিভিন্ন অফিস/শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির বিভিন্ন ক্যাটাগরির এক হাজার ৯৬৫টি শূন্য পদ পূরণের লক্ষ্যে ২০১৩ সালের ১৪ জুন তৃতীয় শ্রেণি এবং ২০১৩ সালের ২১ জুন চতুর্থ শ্রেণির লিখিত পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হয়। কিন্তু নানা অনিয়মের কারণে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সেই পরীক্ষার ফল প্রকাশ প্রথমে স্থগিত করা হয়। পরে পুরো পরীক্ষাই বাতিল করা হয়েছিল। এখন পুরানো প্রার্থীদের আবার পরীক্ষায় বসতে হচ্ছে।

প্রায় তিন বছর পর আবারও সেই পুরনো প্রার্থীদের নিয়েই পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে অধিদপ্তর।

[x]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *