এমপিওভুক্ত ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীর মার্চের বেতনই নতুন স্কেলে!

এমপিওভুক্ত প্রায় ৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারী মার্চ মাসের বেতনই নতুন স্কেল অনুযায়ী পাচ্ছেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন আজ বুধবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত এমপিও কমিটির সভায় এমন তথ্য দিয়েছেন।

তিনি সভাকে বলেন, ‘শিক্ষাসচিব তাকে জানিয়েছেন যে, চারিদিকে চাপ,  আর দেরি করা যাচ্ছে না। সরকারি আদেশ (জিও) জারি হবে আজ-কালের মধ্যে। শিক্ষা মন্ত্র্ণালয়ের পক্ষ থেকে সব হিসেব-নিকেষ শেষ হয়েছে।’

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত কয়েকজন পরিচালক, উপ-পরিচালক ও সহকারি পরিচালক সভাশেষে টেলিফোনে দৈনিকশিক্ষাকে এমন তথ্য জানান। পদাধিকার বলে ওই কমিটির সভাপতি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। দুইমাসে একবার এমন সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুইজন কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক উপ-পরিচালকগণ উপস্থিত ছিলেন।

তবে, এরিয়ার পেতে আরো দুই মাস লাগবে বলে জানান তারা। মার্চের বেতন নতুন স্কেল অনুযায়ী তৈরি করা নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মর্মে দাবী করেন তারা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা বলেন, বিদ্যমান এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বাবদ প্রতি মাসে রাষ্ট্রের ব্যয় হয় ৬০০ কোটির কিছু বেশি টাকা। নতুন স্কেলে বেতন দেওয়া হলে প্রতি মাসে আরও প্রায় ৪০০ কোটি টাকা লাগবে।

নতুন স্কেল পূর্ণাঙ্গভাবে বাস্তবায়িত হলে এমপিওভুক্ত কলেজের একজন প্রভাষকের মূল বেতন হবে ২২ হাজার টাকা (নবম গ্রেড)। বর্তমানে তাঁরা ১১ হাজার টাকা পাচ্ছেন। সহকারী অধ্যাপকেরা পাবেন ৩৫ হাজার ৫০০ টাকা (ষষ্ঠ গ্রেড)। এখন পাচ্ছেন ১৮ হাজার ৫০০ টাকা। আর অধ্যক্ষদের হবে প্রায় ৫০ হাজার টাকা। এখন পাচ্ছেন ২৫ হাজার ৭৫০ টাকা। আর বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকের মূল বেতন হবে দশম গ্রেডে ১৬ হাজার টাকা। এখন পাচ্ছেন ৮ হাজার টাকা। জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষকের বেতন হবে ২২ হাজার টাকা (নবম গ্রেড)। এখন পান ১১ হাজার টাকা।

জানুয়ারি থেকেই নতুন স্কেলে বেতন পাবেন এমন একাধিক ঘোষণার পর এখনও পর্যন্ত অনিশ্চিত হওয়ায় সারাদেশে সাধারণ শিক্ষকরা চরম উৎকন্ঠায় দিনাতিপাত করছেন। শিক্ষক নেতারা চুপচাপ রয়েছেন। তারা সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি প্রস্তুত করেছেন।

শিক্ষক সমিতির একজন নেতা জানান, বিৃবতিতে দাবি করা হবে, ‘ আন্দোলনের হুমকি ও দেনদরবার করে নতুন স্কেল আদায় করেছেন। সরকার ও শিক্ষামন্ত্রীকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতাও দেবেন দুর্নীতির দায়ে বরখাস্ত হওয়া সাবেক কয়েকজন নেতা ।’

এর আগে শিক্ষামন্ত্রী একবার বলেছেন জানুয়ারির বেতনই নতুন স্কেলে, পরে জমিয়াতুল মোদারেছীনের সম্মেলনে বলেছেন ফেব্রুয়ারির বেতন হবে নতুন স্কেলে।

দৈনিকশিক্ষার লাখ লাখ পাঠক বলেছেন, তারা নতুন স্কেলে বেতন-ভাতা হাতে না পাওয়া পর্যন্ত বিশ্বাস করতে পারছেন না।

নেতাদের মুখোশ উন্মোচন করে দেওয়ার জন্য দৈনিকশিক্ষার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তারা।

[x]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *